মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬, ২০২৪
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ইসরাইলে হামালা বাধায় জর্ডানে বিক্ষোভ   * মধ্যপ্রাচ্যের আন্দোলন এড়াতে ম্যাখোঁ সবকিছু করবেন   * যানজটে কষ্টের বাড়িফেরা   * চলচ্চিত্র পরিচালক সোহানুর রহমানের মেয়ের লাশ হোটেলে   * শুদ্ধাচারে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য হলে ব্যবস্থা   * সেবা নিশ্চিত করতে পারলে ভোটের চিন্তা থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী   * আরইবি’র পিবিএস-৪ দরপত্রে একই ব্যাক্তির একাধিক প্রতিষ্ঠান ॥ অংশগ্রহণ করতে পারেনি দেশের অন্য কেউ   * ভাইদের দোয়ায় বেপরোয়া কিশোর গ্যাং   * বিএনপি নেতারা কেন স্ত্রীদের ভারতীয় শাড়ি পোড়াচ্ছেন না, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর   * নোয়াখালি টিটিসির অধ্যক্ষের কু-কীর্তি-২  

   আন্তর্জাতিক
ধর্ষণের প্রতিবাদে ফুলন দেবীর ২০ খুন , ৪৩ বছর পর সাজা ঘোষণা
  Date : 15-02-2024
Share Button


অনলাইন ডেস্ক
আশির দশকে ধর্ষণের বদলা নিতে ২০ জনকে খুন করেছিল ভারতের বিখ্যাত ও কুখ্যাত ডাকাতরানি ফুলন দেবী এবং তার দলের সদস্যরা। সেই হত্যাকাণ্ডের ৪৩ বছর পর সাজা ঘোষণা করল উত্তরপ্রদেশের কানপুরের একটি আদালত। এই ঘটনায় অভিযুক্তদের মধ্যে বর্তমানে দুজন বেঁচে আছেন। তার মধ্যে একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিল কানপুরের আদালত। এছাড়া, প্রমাণের অভাবে অন্যজনকে বেকসুর খালাস করেছেন বিচারক।
উত্তরপ্রদেশের বেহমাই এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছিল ১৯৮১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে। ঠাকুর সম্প্রদায়ের উচ্চবর্ণের পুরুষদের হাতে গণধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন ফুলন দেবী। সেই গণধর্ষণের বদলা নিতে ২০ জন ঠাকুর সম্প্রদায়ের পুরুষকে এক লাইনে দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করেছিল ফুলন দেবী এবং তার দলের সদস্যরা। সেই ঘটনায় গোটা ভারতব্যাপী ব্যাপক আলোড়ন পড়ে গিয়েছিল। ঘটনার চাপে পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী ভিপি সিং। এই ঘটনায় ৩৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। তবে বিচার চলাকালীন ৩২ জন মারা গিয়েছে। বর্তমানে এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত আর দুজন বেঁচে আছে। এরমধ্যে একজনের নাম হল শ্যামবাবু কেওয়াত এবং অন্যজন বিশ্বনাথ। প্রথম জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা ঘোষণা করেছেন কানপুরের দেহাতের অতিরিক্ত জেলা বিচারক অমিত মালব্য এবং দ্বিতীয় জনকে বেকসুর খালাস করেছেন। এই মামলা চলাকালীন ২৮ জন সাক্ষী মারা যান।২০১২ সালে কানপুরের ওই আদালতে চার্জ গঠন হয়েছিল। অন্যদিকে, এই হত্যাকাণ্ডের পরেই ফুলন দেবীর নাম দিকে দিকে ছড়িয়ে পরে। এরপরে একটি সাধারণ ক্ষমা প্রকল্পের অধীনে গণহত্যার দুই বছর পর মধ্যপ্রদেশে আত্মসমর্পণ করেছিলেন তিনি। ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত জেলে ছিলেন। পরে লোকসভা নির্বাচনে জয়ী হয়ে এমপি নির্বাচিত হয় ফুলন দেবী। তার জীবনী নিয়ে লেখা বইটির নাম ছিল ‘ইন্ডিয়াস ব্যান্ডিট কুইন: দ্য ট্রু স্টোরি অফ ফুলন দেবী’। তারপর থেকে ফুলন দেবী ‘ব্যান্ডিট কুইন’ নামেও পরিচিত হয়েছিল। পরে ২০০১ সালে ফুলন দেবীকে গুলি করে খুন করে এক আততায়ী। সেই সময় তিনি এমপি ছিলেন।



  
  সর্বশেষ
সরকারের নির্দেশনা উপেক্ষা করে উদীচীর অনুষ্ঠান দুঃখজনক : তথ্য প্রতিমন্ত্রী
চলচ্চিত্র পরিচালক সোহানুর রহমানের মেয়ের লাশ হোটেলে
শুদ্ধাচারে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য হলে ব্যবস্থা
বিদেশি ঋণ :ভাত দিয়ে ভাত খাওয়ার মত

প্রধান সম্পাদক: এনায়েত ফেরদৌস , অনলাইন সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত ) কামরুজ্জামান মিল্টন |
নির্বাহী সম্পাদক: এস এম আবুল হাসান
সম্পাদক জাকির হোসেন কর্তৃক ২ আরকে মিশন রোড ঢাকা ১২০৩ থেকে প্রকাশিত ও বিসমিল্লাহ প্রিন্টিং প্রেস ২১৯ ফকিরাপুল, মতিঝিল ঢাকা ১০০০ থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ২/২, ইডেন কমপ্লেক্স (৪র্থ তলা) সার্কুলার রোড, ঢাকা ১০০০। ফোন: ০১৭২৭২০৮১৩৮, ০১৪০২০৩৮১৮৭ , ০১৫৫৮০১১২৭৫, ই-মেইল:bortomandin@gmail.com